পাঠানকোটে সহকর্মীর গুলিতে মৃত্যু আরামবাগের জওয়ানের, শোকের ছায়া এলাকায়

  • By UJNews24 Web Desk | Last Updated 29-06-2022, 02:15:28:pm

ঘুমন্ত অবস্থায় নিজের তাঁবুতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু দুই জওয়ানের। পাঠানকোটে (Pathankot) সেনা শিবিরে ডিউটি থেকে ফিরে ঘুমানোর সময় দুজনের উপর গুলিয়ে চালিয়ে দেয় তাঁদেরই সুরক্ষার দায়িত্বে থাকা আরেক সেনাকর্মী। মৃত দুই জওয়ানের একজন গৌরীশঙ্কর হাটি হুগলির আরামবাগের (Arambag) বাসিন্দা। বাড়িতে খবর আসতেই শোকস্তব্ধ পরিবার। গোটা এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

স্থানীয় সূত্রে খবর, আরামবাগ পুরসভা নির্ভয়পুর হাটিপাড়ার থাকতেন গৌরীশঙ্কর হাটি। ২০০৪ সালে সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। পাঞ্জাবের পাঠানকোটের মিরথাল ক্যান্টনমেন্টে কর্তব্যরত ছিলেন। রবিবার ডিউটি থেকে ফিরে রাতে তাঁবুতে ঘুমাচ্ছিলেন। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, সহ সেনাকর্মীর চালানো গুলিতে মৃত্যু হয় জওয়ানের। ঘটনাটি ঘটে পাঞ্জাবের পাঠানকোটে সেনা শিবিরে। জানা গিয়েছে, রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় তাঁদের ওপর গুলি চালায় তাঁদের তাঁবুর পাহাড়াদার আরেকজন জওয়ান। ঘুমন্ত অবস্থায় আরামবাগের নির্ভয়পুরে গৌরী শঙ্কর হাটি সহ (৩৬) আরও দুই সেনা গুলিবিদ্ধ হন। তবে কী কারণে এই গুলি চালানো হয়েছে সে সম্পর্কে কিছু জানানো হয়নি পরিবারের লোকজনকে। গৌরিশঙ্কর ২০০৪ সালে সেনাবাহিনীতে যোগদান করেছিলেন। মহারাষ্ট্রের নাগপুরে প্রথম প্রশিক্ষণ নেয়। তারপর পাঞ্জাবের বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করে। এরপর ফিফটিন গার্ড রেজিমেন্টের হাবিলদার পদে যোগ দেন। গৌরীশঙ্করের স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, সহকর্মীদের সঙ্গে তিনি ঘুমিয়ে ছিলেন। কিন্তু হঠাৎ করেই রাত্রি আনুমানিক ২.৩০ মিনিট নাগাদ গুলি চলে তাঁদের ওপর। মোট তিনজনের উপর গুলি চালায় তাঁদের সহকর্মী সেনা। ঘটনাস্থলেই দুই জনের মৃত্যু হয়। আর একজন ভাগ্যক্রমে বেঁচে যায়। মৃত্যু দুই সেনার নাম গৌরিশঙ্কর হাটি ও সূর্যকান্ত। সঙ্গে সঙ্গেই তাঁদের উদ্ধার করে সেনা কর্তারা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। এই খবর আরামবাগে আসতেই শোকের ছায়া নামে এলাকায়।
গুলি চালনার ঘটনার পরেই সেখান থেকে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত সেনাকর্মী। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গৌরীশঙ্করের মৃত্যুর খবর এসে পৌঁছানোর পর আরামবাগে বাড়িতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। গৌরীশঙ্করের মা রমা হাটি বলেন, “ছেলের খুব আগ্রহ ছিল সেনায় যোগ দেওয়ার। মাধ্যমিক পাশ করার পর থেকেই চেষ্টা শুরু করে। ১৮ বছরে চাকরি পায়।’ ঘুমন্ত ছেলেটাকে গুলি করে মেরে ফেলল।’’ পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, গৌরীশঙ্করের দেহের ময়নাতদন্ত হয়ে গিয়েছে। দেহ হস্তান্তরের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। আগামী কাল নিহত জওয়ানের দেহ পৌঁছবে আরামবাগে ।

 

Share this News

RELATED NEWS