ম্যারাথন জেরার পর জল্পনা বাড়িয়ে কলকাতায় সুবীরেশ, বিমানবন্দরে নেমে বললেন, ‘কোনও দুর্নীতি করিনি’

  • By UJNews24 Web Desk | Last Updated 25-08-2022, 01:05:17:pm

এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতির (SSC Recruitment Scam) তদন্তে বুধবার সকালে উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (Vice Chancellor of North Bengal University) সুবীরেশ ভট্টাচার্যের শিলিগুড়ির বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছিলেন সিবিআই আধিকারিকরা। বুধবার সুবীরেশ ভট্টাচার্যের বাড়ি ও দফতরে একযোগে চলে তল্লাশি অভিযান। অপরদিকে, কলকাতায় থাকা তাঁর বাঁশদ্রোণীর ফ্ল্যাটেও যান কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। এরপর বৃহস্পতিবার জল্পনা বাড়িয়ে সকাল-সকাল তড়িঘড়ি কলকাতার উদ্দেশে রওনা দিলেন উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য।

সূত্রের খবর, আজ সস্ত্রীক বাগডোগরা বিমানবন্দরে পৌঁছন তিনি। সকাল ১০ টা ৪৫ নাগাদ সেখান থেকে ছাড়ে বিমান। সেই বিমানে চড়েই কলকাতা বিমানবন্দর নামেন দুপুর ১২টা নাগাদ। সাংবাদিকদের প্রশ্নর উত্তরে উপাচার্য বলেন, ‘বাড়ি যাচ্ছি’। এরপর তিনি দাবি করে বলেন, ‘কোনও দুর্নীতি করিনি। ওদের জিজ্ঞাসা করুন কী পেয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ে।’ বস্তুত, বুধবার সকাল ৮ টা নাগাদ তাঁর কলকাতার বাঁশদ্রোণীর ফ্ল্যাটে গিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। কিন্তু সেই ফ্ল্যাটে কেউ ছিলেন না। সেই কারণে ফ্ল্যাটটি সিল করে নোটিস সাঁটিয়ে দেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। তাঁরা মনে করছেন নিয়োগ সংক্রান্ত বহু নথি, হার্ড ডিস্ক, তথ্য সেই ফ্ল্যাটে থাকতে পারে। তাই ওই ফ্ল্যাটটিতে পুলিশকে সামনে রেখে আবারও তল্লাশি চালানো হতে পারে এমনটাই অনুমান। ফলত মনে করে হচ্ছে সেই কারণেই এ দিন তড়িঘড়ি কলকাতার উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন উপাচার্য।

প্রসঙ্গত, উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান উপাচার্য সুবীরেশ ভট্টাচার্য অতীতে এসএসসির চেয়ারম্যান ছিলেন। ২০১৪ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত তিনি এসএসসির চেয়ারম্যান ছিলেন। সেই সূত্র ধরেই বুধবার সকালে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য শিলিগুড়িতে সুবীরেশ ভট্টাচার্যের বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। শুধু উপাচার্যের বাসভবনেই নয়, অভিযান চালানো হয় উপাচার্য সুবীরেশ ভট্টাচার্যের দফতরেও।

উল্লেখ্য, বস্তুত, শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে নাম জড়ায় সুবীরেশ ভট্টাচার্যর।তিনি ৪ বছরের বেশি স্কুল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান ছিলেন। হাই কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের কাছে প্রাক্তন বিচারপতি আর কে বাগের কমিটির দেওয়া রিপোর্টে জানানো হয়, ৩৮১টি ভুয়ো নিয়োগ হয়েছে। তার মধ্যে ২২২ জন পরীক্ষাই দেননি বলে অভিযোগ। বাগ কমিটির সেই রিপোর্টেও উল্লেখ ছিল সুবীরেশের নাম।

 

Share this News

RELATED NEWS