‘নিয়েই নিক না, ঝামেলা চুকে যাবে’, হিরণ নিয়ে দিলীপের সাফ জবাব

  • By UJNews24 Web Desk | Last Updated 23-01-2023, 12:46:36:pm

বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষের সঙ্গে দলেরই বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়ের সম্পর্ক বহুচর্চিত। একই জেলার সাংসদ-বিধায়ক হলেও এক অপরের দিকে টিপ্পনি কাটেন নিরন্তর। তৃণমূলের অফিসে তৃণমূল পশ্চিম মেদিনীপুরের কো অর্ডিনেটর অজিত মাইতির পাশে বিজেপি বিধায়ক হিরণের ছবি প্রকাশ্যে আসতেই রাজ্য রাজনীতিতে শুরু হয়েছে দলবদলের গুঞ্জন (Tv9 বাংলা যদিও এই ছবির সত্যতা যাচাই করেনি)। অনেকে এই ছবিটি পুরনো বলে দাবি করে। তারপরও চর্চা থামেনি। পরে বিজেপি দাবি করে, হিরণের ছবিটি বিকৃত করা হয়েছে। তৃণমূল অফিসে বসে থাকা ছবি নয়। এই বিতর্ক আবহে হিরণের এই দলবদলের গুঞ্জন নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল দিলীপ ঘোষকে। তার জবাবে দিলীপ সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, “নিয়েই নিক না! ঝামেলা চুকে যাবে!” হিরণ বিজেপি ছাড়লেও যে কিছু আসে যাবে না, সে কথা প্রকারান্তরে বুঝিয়ে দিতে চেয়েছেন মেদিনীপুরের সাংসদ। যদিও হিরণ দল বদল করবেন কি না, তা তিনি বলতে পারবেন না বলেও সাফ জানিয়ে দিয়েছেন।

 

দিলীপ ঘোষ বিজেপির মেদিনীপুরের সাংসদ। সাংসদ হওয়ার আগে খড়্গপুর সদরের বিধায়ক ছিলেন তিনি। ২০২১ সালে সেই কেন্দ্রের বিধায়ক হয়েছেন হিরণ চট্টোপাধ্যায়। সেই হিরণের দলবদল নিয়েই গুঞ্জন ছড়িয়েছে একটি ছবি। সেই প্রেক্ষিতেই হিরণের ছবি ব্যাপারে দিলীপ বলেছেন, “এ নিয়ে আমি কী বলব অজিত মাইতি আর হিরণ বলবে।” তবে ছবি ঘিরে হিরণের ছবি ঘিরে বিজেপি-র অস্বস্তি নেই বলে সাফ জানিয়েছেন দিলীপ। তিনি বলেছেন, “রাজনীতিতে কে কোথায় থাকবে তা তাঁকেই ঠিক করতে হবে। আমাদের বিধায়ক কম পড়েনি। ওদের কম পড়েছে, তাই আমাদের বিধায়কের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। এ নিয়ে চিন্তিত নই।”

 

পাশাপাশি ভাঙড়ে তৃণমূলের সঙ্গে আইএসএফের ঝামেলা এবং তৃণমূল নেতার বাড়ির কাছ থেকে বোমা উদ্ধারের প্রসঙ্গে সোমবার ইকো পার্টে হাঁটতে গিয়ে দিলীপ বলেছেন, “তৃণমূলের পার্টি অফিস বোমা, বন্দুকের কারখানা। নেতাদের বাড়িতে পাওয়া যাচ্ছে অস্ত্রশস্ত্র। এটা নতুন কিছু না। সমস্ত সমাজ বিরোধী তৃণমূলের নেতা হয়ে গিয়েছে। এরা বোম-বন্দুক নিয়ে জিতিয়ে পার্টিকে সরকারে নিয়ে এসেছে। তার পুরস্কার হিসেবে লুটপাট করার সুযোগ পেয়েছে। পুরো পার্টিটাই অপরাধীদের নিয়ে চলছে এখন। যেখানে হাত দিচ্ছে এরকম লোক বেরোচ্ছে। আগামী দিনে আরও লোক বেরবে।”

 

Share this News

RELATED NEWS