• By UJNews24 Web Desk | Last Updated --,

বুধবার উত্তরবঙ্গ যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শিলিগুড়িতে মুখ্যমন্ত্রীর সভার দিনই আবার কর্মসূচি রয়েছে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। ফলে ওই একই দিনে তিনিও সভা করবেন শিলিগুড়ি। শুধু তাই নয়,মমতার যাত্রাপথে তাঁকে কালো পতাকা দেখানোরও প্রস্তুতি নিয়েছে বিজেপি। এই পরিস্থিতি সংঘাত বাধার আশঙ্কা একেবারেই উড়িয়ে দিচ্ছে না রাজনৈতিক মহল।

আজ শিলিগুড়ি পৌঁছে কার্শিয়াঙ যাবেন মুখ্য়মন্ত্রী। সেখানে আগামী ৭ তারিখ অবধি পারিবারিক বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন। এরপর আগামী ৮ তারিখ কার্শিয়াং, ১০ তারিখ আলিপুরদুয়ারে, ১১ তারিখ বানারহাটে এবং ১২ তারিখ শিলিগুড়িতে সভা করবেন।

শিলিগুড়ির এই সভা নিয়েই যত প্রশ্ন। কারণ এখন চলছে লিগের খেলা। আর তা চলাকালীন খেলা বন্ধ করে স্টেডিয়ামে মমতার সভা করতে গিয়ে মাঠ খুড়ে নষ্ট করা হচ্ছে বলে বিরোধীদের অভিযোগ। এ নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েই ওই দিন শিলিগুড়িতে পাল্টা সভার ডাক দিয়েছে বিজেপি। হাজির থাকবেন শুভেন্দু অধিকারী। যাত্রাপথে মুখ্যমন্ত্রীকে কালো পতাকা দেখানোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন গেরুয়া শিবিরের নেতারা। ওই দিন বিজেপির সভায় আসবেন শুভেন্দু অধিকারী। আজই এ নিয়ে আবেদন করা হবে। অনুমতি মিলবে না ধরে নিয়েই আদালতে যাওয়ার প্রস্তুতিও শুরু করে দিয়েছে বিজেপি। সব মিলিয়ে রাজনৈতিক উত্তেজনা বাড়ছে শিলিগুড়িতে।

মেয়র গৌতম দেব বলেন, “এদের উচিত আরও একটি ফুটবল মাঠ দেখা। মুখ্যমন্ত্রীর সভার পর মাঠ ঠিক করে দেওয়া হবে বলেছিলাম। খেলাধুলো আমার হৃদয়ে রয়েছে। তবে এটাকে নিয়ে রাজনীতি করা নিন্দাজনক। বিজেপির অধিকার আছে বিক্ষোভ দেখানো। তবে তা কীভাবে মোকাবিলা করতে হয় জানি। হাতে চুরি পরে বসে নেই। হাত পা ভেঙে দেব।” বিজেপি নেতা শঙ্কর ঘোষ বলেন, “এটা মুখ্যমন্ত্রীর গা জোয়ারি মনোভাব প্রকাশ পায়। এর আগে এই স্টেডিয়ামে গায়ক অরিজিৎ সিংয়ের সময় প্রতিবাদ করেছিলাম। তখন বলেছিলাম খেলা ব্যাতিত আর কোনও অনুষ্ঠান হবে না। এখন শুনছি তৃণমূলের প্রধান ফুটবল মাঠে এসে কর্মসূচি করছেন। যদি সেটা হয় আমি নিজে এর প্রতিবাদ করব।”

 

Share this News

RELATED NEWS